কোভিড ১৯ শনাক্তকরনে অংশীদার দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে কিট দিল ভারত

সুব্রত মজুমদার, দিনাজপুর : কোভিড  ১৯ শনাক্তকরনে ভারতে ব্যবহৃত কিট এই প্রথম অংশীদার দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দেওয়া হল। ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২৯শে এপ্রিল বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে টেলিফোন করেন।কোভিড ১৯ বিস্তার নিয়ন্ত্রনে  এবং স্বাস্থ্য ও অর্থনীতিতে  মহামারীটির প্রভাব কমানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন শেখ হাসিনা। ভারতীয় হাই কমিশনের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে সার্ক কোভিড ১৯ জরুরী তহবিলের আওতায় কোভিড ১৯ এর বিস্তার রোধে বাংলাদেশ সরকারের প্রচেষ্টায় সাহায্য করার উদ্দেশ্য এই সহায়তা দেওয়া হয়েছে। ভারতীয় হাই কমিশনার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে তার দপ্তরে চিকিৎসা সহায়তা হস্তান্তরের সময় জানান ‘আরটি – পিসিআর’ সনাক্তকরণ কীটগুলো ভারতের ‘মাই ল্যাব’ ডিসকভারি সলিউশন প্রাইভেট লিমিটেড উৎপাদন করেছে। ভারতের হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাস সম্বন্ধিত জরুরী চিকিৎসা সহায়তা তৃতীয় চালান পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন এর কাছে হস্তান্তর করেছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঘোষণায় ভারতের ১০ মিলিয়ন  ডলার প্রাথমিক  সহায়তা  নিয়ে সার্ক কোভিড ১৯ জরুরি  তহবিল গঠিত হয়। এই তহবিলের অধীনে ৩০ হাজার  সার্জিক্যাল মাক্স ও ১৫ হাজার হেড কভার সমন্বিত জরুরি  চিকিৎসা সহায়তার প্রথম চালান ২৫শে মার্চ বাংলাদেশকে দেওয়া হয়। ৫০ হাজার জীবাণুমুক্ত সার্জিক্যাল লাটেক্স গাভস  সমন্বিত জরুরি  চিকিৎসা সরবরাহের দ্বিতীয় চালান বাংলাদেশ সরকারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।শনাক্তকরন কিটগুলো বাংলাদেশে পরীক্ষার সংখ্যা বাড়িয়ে দেবে, যা এ মুহূর্তে  খুব প্রয়োজন।      সূত্র : আলোকিত দিনাজপুর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *